চালু হল দেওয়ানচকে বাঁশেরপুল,উপকৃত দশটিরও বেশি গ্রামের মানুষ

বন্যার পরথেকে ভগীরথপুর,জামিরা,দেওয়ানচক লাগোয়া গ্রামগুলির মানুষের যাতায়াতের ভীষণ সমস্যা হচ্ছিল দেওয়ানচকের বাঁশের পুলটি না থাকার কারণে। যাতায়াতের এক মাত্র মাধ্যম ছিল খেয়া পারাপার। কিন্তু নাড়াজোল একবার এসে ফিরে যেতে তাতে ত্রিশ টাকার মত খরচ হত বলে স্থানীয় বাসিন্দারা জানালেন। কিন্তু বুধবার বাঁশের পুলটি আবার নতুন করে চালু হয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দা মানস জানা জানালেন এই রাস্তাই নাড়াজোলের সাথে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম। বর্তমানে যে পুলটি নির্মিত হয়েছে তাতে মেশিন ট্রলি,মারুতি ছাড়াও মাঝারি ধরনের মালবাহী গাড়িও যাতায়াত করছে।

মানসবাবু আরও জানালেন,প্রতিবছর শীলাবতির জল বাড়লে সময়মত এই পুল না খুলতে পারলে জলের তোড়ে পুল ভেঙে যায়। এবং তার পরথেকে খেয়া ঘাটে নৌকাই একমাত্র ভরসা থাকে। নৌককরে এলাকার কৃষকদের কৃষিজাত বিভিন্ন সবজি নাড়াজোল,লঙ্কাগড়ের হাটে আনার অনেক অসুবিধা যেমন থাকে পরিবহণ খরচ বাদে মুনাফাও হাতে তেমন থাকে না। তাই পুনরায় বাঁশেরপুল চালু হওয়ায় সবাই খুশি।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Soumen Misra

তথ্যভিত্তিক সত্য, কথায় ও লেখায় প্রকাশ পাক।
✆+919932953367
Em@il:- soumenmisra.in@gmail.com
  • gplus

Leave a comment