দেরি করায় প্রধান শিক্ষিকাকে স্কুলে ঢুকতে দেওয়া হল না

শিক্ষিকাদের স্কুলে আসতে দেরি দেখে স্কুলের মেন গেটে তালা লাগিয়ে দিলেন পরিচালন কমিটির সভাপতি। ফলে স্কুলের বাইরেই দাঁড়িয়ে থাকতে হল দাসপুর-২ ব্লকের শ্রীবরা বালিকা বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা চন্দনা ঢালি সরকারকে। ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকার সঙ্গে আটকে পড়েন ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষাকর্মী (ক্লার্ক) এবং কয়েকজন শিক্ষিকাও। পরিচালন কমিটির সভাপতি পলাশকান্তি বেরা বলেন, আমাদের স্কুলে মাস পাঁচেক আগে রেজুলেশন করা হয় প্রত্যেক শিক্ষিকা এবং শিক্ষা কর্মীকে বেলা ১০টা ৪৫ মিনিটের মধ্যে স্কুলে প্রবেশ করতে হবে আর বিকেল ৪টা ১৫ মিনিটের আগে স্কুল ছেড়ে যাওয়া যাবে না। কিন্তু সেই নিয়ম কোনও  কোনও শিক্ষিকা এবং শিক্ষাকর্মী  মানছেন না। এলাকার বাসিন্দা এবং অভিভাবকরা এনিয়ে প্রায়ই অভিযোগ করেন।  সেজন্যই এদিন ওই সিদ্ধান্ত নিতে হয়। চাবি দেওয়ার ফলে দেখা গেল খোদ ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকাই স্কুলে ১১টা ১০এ প্রবেশ করতে যাচ্ছিলেন। সেই সঙ্গে কিছু শিক্ষিকা এবং এক শিক্ষাকর্মীও।  চন্দনাদেবী বলেন, স্কুল চত্বরে যেতে আমার মাত্র ৩ মিনিট দেরি হয়েছিল। আমি এদিন যখন গেটে পৌঁছাই তখন ১০টা ৪৮ মিনিট। উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে আমাদের অপদস্থ করা হয়েছে। এর পেছনে অন্য কারণ রয়েছে। •ভিডিও ফুটেজ দেখতে চাইলে এখানে ক্লিক করতে পারেন।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

তৃপ্তি পাল কর্মকার

সম্পাদক, ‘স্থানীয় সংবাদ’ • মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য মেল করতে পারেন।
  • gplus

Comments

  1. Koushik
    April 12, 2017 at 11:27 pm

    R ki ba asa kora jai!

  2. Partha De
    April 14, 2017 at 9:52 am

    Good job done by the school committee!

    3 minutes late is also LATE, which shows irresponsibility and casual approach towards your duties and responsibilities.

Leave a comment