হাতে মাত্র এক দিন৷ স্কুলের পুজো, তাই ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে ব্যস্ততা এখন তুঙ্গে৷ ছাত্রদের হাতে সেজে উঠছে মণ্ডপ৷ এর মধ্যে কোথাও যেন একটা অঘোষিত লড়াই চলছে পড়ুয়াদের মধ্যে৷ এ লড়াই পাশের স্কুলকে টেক্কা দিয়ে নিজের স্কুলকে সেরা করার লড়াই! তাই একটু অন্য ভাবে নিজেদের স্কুলের পুজোকে তুলে ধরতে ব্যতিক্রমি পথে চলে আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে দাসপুরের সাগরপুর আশুতোষ উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রের তৈরি প্রতিমা৷ সহপাঠিদের অনুপ্রেরণায় নিজের হাতে প্রতিমা গড়ে সবাইকে তাক লাগালো ওই স্কুলের দশম শ্রেনির ছাত্র বিকাশ মাইতি৷ পড়াশুনো,গান,ছবি আঁকার সাথে মাটির কাজ তাঁর অতি প্রিয়৷ পরিবারের কাউকে দেখে নয়, নিজের আত্মবিশ্বাসে ভর করে স্কুলের প্রতিমা গড়ার দায়িত্ব নিজের কাঁধে নিয়েছে বিকাশ৷ প্রতিমা গড়তে তাঁর সময় লেগেছে প্রায় দুই সপ্তাহ৷ স্কুলে টিফিনের পরে গুটিকয়েক সহপাঠিদের সাহায্য নিয়ে কাঠামো তৈরি, খড় জড়ানো,মাটি ধারানো ও রং তুলির মাধ্যমে সে সাজিয়ে তুলেছে বীনাপাণিকে৷ ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মানসকুমার মান্না বলেন, বিকাশের শৈল্পিক মন রয়েছে৷ আগের বছরো প্রতিমা তৈরি করেছিল৷ কিন্তু সে বার আগাম কোন প্রস্তুতি ছিল না! এবার আমরা অনেকটাই নিশ্চিত ছিলাম নতুন কিছু চমক রাখবে বিকাশ৷ সামনের বছর ওর মাধ্যমিক পরীক্ষা৷ প্রতিমা তৈরি করতে গিয়ে যাতে পড়াশুনায় ক্ষতি না হয় সে বিষয়ে ওকে আগাম সতর্ক করেছি৷ বিকাশের সহপাঠি শুভজিৎ চক্রবর্তী,সুতপা রানা,অর্পিতা রানা,সৌরভ বাগ জানায় বাইরে থেকে পেশাদার শিল্পীর তৈরি প্রতিমা অপেক্ষা আমাদের সহপাঠির তৈরি প্রতিমা কোন অংশে কম নয়৷ আমরা আমাদের এলাকা ছাড়াও অন্যান্য স্কুলগুলিকে আমন্ত্রণ জানিয়েছি৷ আশা করছি সবাই আমাদের প্রতিমা ও মণ্ডপ সজ্জা সকলের মনে দাগ কাটবে৷

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

সুদীপ্ত শেঠ

আর্থ-সামাজিক বিষয়ে প্রবন্ধ লেখা আমার অন্যতম নেশা।আমার লেখা প্রতিবেদন সংক্রান্ত ব্যক্তিগত মতামত ও পরামর্শ আমার ফোনে বা ইমেলে দেওয়া যাবে।
ফোন:9547128133
ইমেল:sudiptaseth8@gmail.com
  • gplus

Leave a comment