রবিবারের শীতের বিকেলে ঘাটালের পথে উষ্ণতা ছড়াল ডান,বাম ও রাম

ঘাটাল জুড়ে রাজনৈতিক কর্মসূচী নিয়ে রাস্তায় তিন তিনটি রাজনৈতিক শিবির। রাবিবারের বিকালে লাল, গেরুয়া এবং সবুজ এই তিন রাজনৈতিক দলের কর্মীরাই পথে নামল। দাসপুরের রাজনগর ও সোনাখালী এবং চন্দ্রকোণার ক্ষীরপাই এই তিন জায়গায়ই শীতের বিকেলে উষ্ণতা ছড়াল রাম, বাম ও তৃণমূলের কর্মী সমর্থক থেকে দলের নেতানেত্রীরা। কারও প্রতিবাদ, কারও সমর্থন আবার কারও বা দাবী শিক্ষাক্ষেত্রে পরিবর্তনের।

দাসপুরের রাজনগরে ছিল এন.আর.সি এবং সি.এ. এ সমর্থনে হাজার হাজার বিজেপি কর্মী সমর্থকদের মিছিল। ঘাটাল সাংগঠনিক জেলা কমিটির উদ্যোগে এদিন দাসপুরের রাজনগর বাজার থেকে হাজার খানেক বিজেপি কর্মী সমর্থক সুরতপুর পর্যন্ত যায় এবং মাঝে ডিহিপলসায় একটি পথভসভাও করে।

অন্যদিকে ক্ষীরপাইয়ে এন আর সি নিয়ে উলটো সুর তৃণমূলের। এদিন বিকেলে ক্ষীরপাই এলাকায় তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা এন.আর.সি এবং সি.এ.এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে মিছিল করে। এখানেও কর্মী সমর্থকের উপস্থিতি ছিল নজরকাড়া। এই মিছিলে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা সভাপতি অজিত মাইতি, চন্দ্রকোনার বিধায়ক ছায়া দোলুই প্রমুখ।

এদিকে দাসপুর ২ নম্বর ব্লকের সোনাখালীর আজুড়িয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে সিপিএমের ছাত্র সংগঠন SFI লোকাল কমিটির উদ্যোগে একটি প্রকাশ্য সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় এবং পরে একটি মিছিলও করা হয়। এদিন এলাকার দুঃস্থ ও মেধাবী উচ্চ মাধ্যমিক ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে এস এফ আই তরফে টেস্ট পেপারও বিতরণ করা হয়।

মিছিলে এস এফ আই এর কর্মী সমর্থক থেকে নেতৃত্বরা দাবি তোলেন, পড়াশুনার খরচ কমানো, জাতি ধর্মের হিংসা বন্ধ, শিক্ষার অধিকার রক্ষা, স্কুলে নির্ধারিত ফি ২৪০ টাকা দিতে বাধ্য না করা ইত্যাদির। এদিনের এই কর্মসূচীতে হাজির ছিলেন SFI এর পশ্চীম মেদিনীপুরের জেলা সম্পাদক প্রসেনজিৎ মুদি নিজে।