রাতে ছেলে ধরার হুজুগে মাতল দাসপুরের হরিরামপুর

রাতেই ছেলে ধরার হুজুগ উঠল হরিরামপুরে। আজ ২০ ফেব্রুয়ারি রাত ৯টা নাগাদ হঠাৎ দাসপুর থানার হরিরামপুর মাজি পাড়ায় হৈ হট্টগোল শুনে পাশাপাশি এলাকা থেকে শতাধিক লোক জড়ো হন।

জনতা জড়ো হতেই ওই পাড়ার পক্ষে জানানো হয়, কয়েকজন যুবক তাদের বাড়িতে এসে উঁকি মারছিল। বাচ্চা ছেলে খুঁজছিল। তারপরই বাড়ির সবাই চিৎকার করতে
শুরু করেন। চিৎকার শুনে সাথে সাথে পাড়ার লোকজন চলে এলে যুবকগুলি চম্পট দেয়। পরে তাদের অনেক খোঁজাখুঁজি করেও কেউ হদিশ করতে পারেনি। শুধু তাই নয়, এই ঘটনার কোনো প্রত্যক্ষদর্শীর বয়ান পাওয়া সম্ভব হয়নি।

জনাকয়েক মানুষ ঘাটাল মেদিনীপুর সড়কের ধারে হরিরামপুর মাজি পাড়ায় ঢুকে হঠাৎ উধাও হয়ে গেল, এটা কি আদৌ সম্ভব? তাই এই ঘটনাকে অনেকেই কাল্পনিক বলে মনে করছেন। তাঁদের বক্তব্য, ওই মাজি পাড়া থেকে বেরিয়ে পালাতে গেলে হয় তাদেরকে ডিহিপলসা বা হরিরামপুরের দিক দিয়ে যেতে হবে। কিন্তু ওখান থেকে বেরিয়ে যাবার প্রায় সব রাস্তায় বন্ধ করে ফেলেছিল এলাকাবাসী। তাই অনেকেই মনে করছেন, এটা তাঁদের দেখার ভুল।

জেলা জুড়ে কয়েকদিন ধরেই এই ছেলে ধরার রব উঠেছে। অজ্ঞাত, ভবঘুরে দেখলেই বিভিন্ন জায়গায় ছেলেধরা সন্দেহে কিছু সাধারণ মানুষকে মারধর করা হচ্ছে। কিন্তু সারা রাজ্যে এখনও পর্যন্ত একটি ঘটনারও সত্যতার প্রমাণ মেলেনি। তাই বুদ্ধিজীবীদের ধারণা, হরিরামপুরেও কিছু হুজুগ কাজ করেছে।