প্রশাসনিক তৎপরতায় কয়েকদিনেই পাল্টে গেল ঘাটালের বীরসিংহ

মনসারাম কর: প্রশাসনিক তৎপরতায় কয়েকদিনের মধ্যেই এক লহমায় বদলে গেল বীরসিংহের ছবি।

গ্রামবাসীদের দাবি মেনে বীরসিংহের অলিতে-গলিতে ঢালাই রাস্তা, সমগ্র বীরসিংহ অঞ্চলজুড়ে পথবাতি লাগানো, বিদ্যাসাগরের স্মৃতিমন্দির সংস্করণ, রাস্তার দুই ধারে ঝাউ গাছ লাগানো, বিদ্যাসাগরের স্মৃতিবিজড়িত পুকুরপাড়ে বৃক্ষরোপনের পরিকল্পনা, ভগবতী গার্লস হাইস্কুল সাজিয়ে তোলা ইত্যাদি কাজে অনেকটাই সফল হয়েছে প্রশাসন। প্রশাসনের কাজে খুশি এলাকাবাসী। এই নিয়ে বিদ্যাসাগর স্মৃতিমন্দিরের তত্তাবোধক দিলীপ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, বিদ্যাসাগরের মন্দিরটিতে পাথর বসানো, রং করা, বাগান সাজানো, মন্দিরের রাস্তা তৈরি সহ নানান ভাবে মন্দিরটির নবসংস্করণ করা হয়েছে, প্রশাসনের এই উদ্যোগে আমরা খুবই খুশি।

বীরসিংহের অঞ্চল সভাপতি তথা ঘাটাল পঞ্চায়েত সমিতির খাদ্য ও সরবরাহ বিভাগের কর্মদক্ষ প্রশান্ত রায় বলেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় প্রায় আড়াই কোটি টাকা খরচ করে পাকা রাস্তা তৈরি, পথবাটি লাগানো, গাছ লাগানো ইত্যাদি কাজ এখানে করা হয়েছে, বীরসিংহকে আদর্শ গ্রাম করার জন্য মুখ্যমন্ত্রী অনেক কিছুই ঘোষণা করবেন তার জন্য আমরা আশাবাদী। গ্রামবাসী জয়রাম ভট্টাচার্য বলেন, পাকা রাস্তা, গাছ লাগানো সহ অনেক কাজ এখানে হয়েছে এবং আরও অনেক কাজই হচ্ছে, বীরসিংহের বর্তমান ছবিটা আগের থেকে অনেকটাই বদলেছে। প্রসঙ্গত, আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর মুখ্যমন্ত্রীর বীরসিংহ আসাকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় এই গ্রাম পরিদর্শন করেছেন জেলাশাসক রশ্মি কোমল ও পুলিশ সুপার দিনেশ কুমার। আজ ২১ সেপ্টেম্বর বীরসিংহে গিয়ে এখানকার বর্তমান হাল-হকিকত সরেজমিনে আরও একবার খতিয়ে দেখেন তাঁরা।

ঘাটাল মহকুমার সমস্ত আপডেট তে যুক্ত হন আমাদের সাথে!