শহীদ ক্ষুদিরাম বসুর ১৩৪ তম জন্মদিন পালিত হল দাসপুরের বড়শিমুলিয়ায়

সন্তু বেরা, স্থানীয় সংবাদ, ঘাটাল: মহা ধুমধামে পালিত হল ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের প্রথম শহীদ ক্ষুদিরাম বসুর ১৩৪ তম জন্মদিবস। দাসপুরের বড় শিমুলিয়া শহীদ ক্ষুদিরাম স্মৃতিরক্ষা সোসাইটির পক্ষ থেকে আজ ৩ ডিসেম্বর ক্ষুদিরাম বসুর জন্মদিন পালন বিভিন্ন ধরনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, খেলাধুলার আয়োজন করা হয়েছিল বলে জানা যাচ্ছে। ওই এলাকার মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি শরীর চর্চার জন্য একটি ব্যায়ামাগারের ব্যবস্থা করে দেওয়া। ১০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত সেই ব্যায়ামাগার কেন্দ্রের আজ শুভ উদ্বোধন হল দাসপুরের বিধায়ক মমতা ভুঁইয়ার হাত দিয়ে।

এছাড়াও শহীদ ক্ষুদিরাম স্মৃতিরক্ষা সোসাইটির প্রশাসনের কাছে দীর্ঘদিনের একটি দাবি ছিল রায়মনি রাস্তাটি পাকা করে দেওয়ার। সেই বিষয়েও আজ দাসপুর-১ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সুনীল ভৌমিকের কাছে প্রশ্ন রাখলে তিনি বলেন, আমরা ইতিমধ্যেই প্ল্যান পাঠিয়ে দিয়েছি জেলাস্তরে। আশাকরি আগামীদিনে ওই রাস্তাটি পাকা রাস্তা করে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

আজকের ওই মহতী অনুষ্ঠানে দাসপুরের বিধায়ক মমতা ভুঁইয়া, দাসপুর-১ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সুনীল ভৌমিক ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন দাসপুর-১ ব্লক ভূমি ও ভূমি সংস্কার আধিকারিক কৌশিক সামন্ত, বাসুদেবপুর গ্রাম পঞ্চায়েতর প্রধান সাবিনা ইয়াসমিন ও উপপ্রধান কাজল সামন্ত সহ অন্যান্যরা।

উল্লেখ্য, ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের ইতিহাসে সবচেয়ে অল্পবয়সে ফাঁসির দড়ি হাসিমুখে গলায় পরেছিলেন ক্ষুদিরাম বসু। মাত্র ১৯ বছর বয়সে দেশের জন্য প্রাণ দিয়েছিলেন তিনি। ১৮৮৯ সালের ৩ ডিসেম্বর জন্ম হয়েছিল এই ক্ষুদিরামের। বাবা-মা হারা ছোট্ট ক্ষুদিরাম দিদির কাছে থেকেই বড় হয়েছিলেন। সে নিয়েও রয়েছে অনেক কাহিনী। ব্রিটিশ বিচারক ম্যাজিস্ট্রেট কিংসফোর্ডে্য গাড়িতে বোমা ছুঁড়ে মারার অপরাধে ফাঁসিকাঠে প্রাণ দিতে হয়েছিল তাঁকে। সেই ক্ষুদিরাম বসু ব্রিটিশদের ডাক লুন্ঠন করেছিলেন দাসপুরের বড় শিমুলিয়াতে এবং ওই এলাকাতেই গা ঢাকা দিয়েছিলেন। সেই থেকেই ঐতিহাসিক ওই জায়গাটি বিখ্যাত ক্ষুদিরামের ডাক লুন্ঠন নামে।

ঘাটাল মহকুমার সমস্ত আপডেট তে যুক্ত হন আমাদের সাথে!

‘স্থানীয় সংবাদ’ •ঘাটাল •পশ্চিম মেদিনীপুর-৭২১২১২ •ইমেল: [email protected] •হোয়াটসঅ্যাপ: 9933998177/9732738015/9932953367/9647180572/9434243732 আমাদের এই নিউজ পোর্টালটি ছাড়াও ‘স্থানীয় সংবাদ’ নামে একটি সংবাদপত্র, MyGhatalমোবাইল অ্যাপ এবং https://www.youtube.com/SthaniyaSambad ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে।