কেওয়াইসি এর নামে গ্ৰাহক হয়রানির অভিযোগে দাসপুরে

নিজস্ব সংবাদদাতা, স্থানীয় সংবাদ, ঘাটাল: কে ওয়াই সি অর্থাৎ নো ইয়োর কাস্টমার। ব্যঙ্কের গ্রাহকদের ফি বছর এই কে ওয়াই সির নথি দিতে নাজেহাল হতে হচ্ছে। আজ ১৩ জুলাই মঙ্গলবারের ভোর থেকে দাসপুরের টালিভাটার এই ব্যঙ্কে গ্রাহকদের লাইন। গ্রাহকদের অভিযোগ সপ্তাহে মঙ্গল ও বৃহস্পতিবার ব্যঙ্ক কর্তৃপক্ষ এই কে ওয়াই সি নথি জমা নেয় তাও আবার মাত্র ৩০ জনের। বেলা ১০টার পর দেওয়া হবে টোকেন। আর সেই টোকেন নিতেই ভোর চারটা থেকে গ্রাহকদের লম্বা লাইন। কী, এই করোনা পরিস্থিতিতে বিষয়টা অমানবিক লাগছে না? সারা ভারতে যখন চলছে ডিজিটাল ইন্ডিয়া গঠনের কাজ প্রশ্ন উঠছে প্রত্যেক বছর ব্যঙ্কে কেন আলাদা করে এই কে ওয়াই সি জমা দিতে হবে? ব্যঙ্ক কেন নিজেদের গ্রাহকদের নথি গুছিয়ে রাখছে না? না পিছনে রয়েছে অন্য কোনো কারণ? কারণ যাই হোক, যে গ্রাহকের টাকায় ব্যঙ্ক কর্মীদের মাসের বেতন ব্যঙ্কগুলির বাড়বাড়ন্ত সেই গ্রাহকদের সাথেই ব্যঙ্কের কেন এমন অমানবিক আচরণ? এমন একাধিক প্রশ্ন উঠছে আজ মঙ্গলবারের সকাল থেকে টালিভাটায় গ্রাহকদের বিক্ষোভ থেকে।

 

ঘাটাল মহকুমার সমস্ত আপডেট তে যুক্ত হন আমাদের সাথে!

‘স্থানীয় সংবাদ’ •ঘাটাল •পশ্চিম মেদিনীপুর-৭২১২১২ •ইমেল: [email protected] •হোয়াটসঅ্যাপ: 9933998177/9732738015/9932953367/9647180572/9434243732 আমাদের এই নিউজ পোর্টালটি ছাড়াও ‘স্থানীয় সংবাদ’ নামে একটি সংবাদপত্র, MyGhatalমোবাইল অ্যাপ এবং https://www.youtube.com/SthaniyaSambad ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে।