দাসপুরে মদ খাইয়ে নিজের বন্ধুকে খুন  

নিজস্ব সংবাদদাতা:  দাসপুর থানার ভগবতীপুরে সঞ্জয় বরকে (২৫) খুন করেছিল তাঁর নিজের বন্ধুই। দাসপুর থানার পুলিশের তদন্তে এই তথ্যই বেরিয়ে এসেছে।  আজ ২৩ ফেব্রুয়ারি সকালেই  ওই খুনের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে অনুপম পাল নামে সঞ্জয় বরের সেই বন্ধুকে পুলিশ গ্রেপ্তারও করেছে। তবে কী কারণের জন্য অনুপম সঞ্জয়বাবুকে খুন করেছে তা পুলিশের কাছে পরিষ্কার নয়।  আজ ২৩ ফেব্রুয়ারি সকালে ভগবতীপুরের একটি নির্জন মাঠে সঞ্জয়বাবুর রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার হয়। এলাকার বাসিন্দারা ওই মৃত দেহটি দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই খুনের তদন্তে নেমে পড়ে।

ঘটনাস্থলে  যান ঘাটাল মহকুমার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ আধিকারিক সমীর চৌধুরী, ঘাটালের সিআই সুপ্রিয় বসু, দাসপুর থানার ওসি সুদীপ ঘোষাল সহ পুলিশের বিশাল একটি বাহিনী। এলাকায় তদন্ত করে এবং বিভিন্ন সূত্র ধরে অনুপমকে পুলিশের সন্দেহ হয় এবং তাকে সঙ্গে সঙ্গে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। অনুপমও জেরার মুখে স্বীকার করেছে, সে গত রাতে অর্থাৎ ২২ ফেব্রয়ারি সঞ্জয়বাবুকে মদ খাওয়ার নাম করে মাঠে নিয়ে যায় এবং সেখানে মদ খাইয়ে খুন করে। অনুপমের সঙ্গে আরও কয়েকজন ছিল বলে পুলিশের অনুমান।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, অনুপম এবং সঞ্জয়বাবু পরস্পর বন্ধু। তাঁদের দুজনের বাড়িই ভগবতীপুরে।  সঞ্জয়বাবু আগে সোনার কাজ করতেন। কিছু দিন হল বাড়িতে এসে ব্যবসা করতে শুরু করেছেন। শনিবারও দুই বন্ধুকে এক সঙ্গে ঘুরতে দেখেছেন অনেকে। আজ সকালে সঞ্জয়বাবুর মৃতদেহ দেখে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। কী কারণের জন্য সঞ্জয়বাবুকে খুন করা হয়েছে তা পুলিশের কাছে পরিষ্কার নয়। তবে আর্থিক লেনদেন জনিত বচসার জন্য সঞ্জয়বাবু খুন হতে পারেন বলে প্রাথমিক ভাবে সন্দেহ করা হচ্ছে।