পরীক্ষার আগেই প্রশ্ন ফাঁস? অভিযোগ ঘাটাল জুড়েও

মন্দিরা মাজি, স্থানীয় সংবাদ, ঘাটাল: পরীক্ষার কয়েক ঘন্টা আগেই আউট হয়ে যাচ্ছে প্রশ্নপত্র, তারপর শুরু হচ্ছে পরীক্ষা। শিক্ষা ব্যবস্থাকে কোথায় নামিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন স্কুল শিক্ষকেরা? প্রশ্ন উঠছে আবারও। বর্তমানে স্কুলে স্কুলে চলছে একাদশ শ্রেণির ফাইনাল পরীক্ষা। বোর্ড নির্ধারিত প্রশ্নপত্রের পরীক্ষা দিতে হয় ছাত্রছাত্রীদের। কিন্তু অভিযোগ উঠেছে পরীক্ষা শুরুর ঘন্টা তিনেক আগে থেকেই পরীক্ষার প্রশ্নপত্রগুলি আউট হয়ে যাচ্ছে পরীক্ষার প্রথম দিন থেকেই। সোশ্যাল মিডিয়ার পাশাপাশি ছাত্রছাত্রীদের হাতে হাতে ঘুরছে ফাইনাল পরীক্ষার প্রশ্ন। হাতে সময় নিয়ে সমস্ত প্রশ্নের উত্তর রেডি করে তারপরই পরীক্ষা দিচ্ছে ছাত্রছাত্রীরা। পশ্চিমবঙ্গ গৃহশিক্ষক কল্যাণ সমিতির রাজ্য সভাপতি হীরালাল মণ্ডল বলেন, কিছু কিছু স্কুল শিক্ষক রয়েছেন যাঁরা স্কুলে শিক্ষকতা করার পরও বাড়িতে টিউশন পড়ান। শুধুমাত্র নিজের প্রাইভেট টিউশনে ছাত্রছাত্রী বাড়ানোর উদ্দেশ্যে কিছু কিছু শিক্ষক এই ধরনের অপকর্ম করছেন। বোর্ড থেকে আসা প্রশ্নপত্র তারা কোনও ভাবে আউট করছেন এবং তাঁদের কাছে যেসমস্ত ছাত্রছাত্রীরা পড়ে তাদের হাতে দিচ্ছেন তাদের বেশি নম্বর পাইয়ে দেওয়ার উদ্দেশ্যে।

 

বিষয়টি ঘাটাল মহকুমা অতিরিক্ত জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক মানবেন্দ্র ঘোষকে জানানো হলে তিনি বলেন, এই নিয়ে আমার কাছে এখনও কোনও অভিযোগ আসেনি। তবুও বিষয়টি নিয়ে খোঁজ নিচ্ছি। যদি বিষয়টি ঠিক হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই আমরা উপযুক্ত ব্যবস্থা নেবো।

উল্লেখ্য, ১৪ মার্চ থেকে রাজ্যে শুরু হয়েছে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা। আমরা সকলেই জানি উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার সঙ্গে একাদশ শ্রেণিরও পরীক্ষা হয় বোর্ডের প্রশ্নপত্রে। দুপুর ২ টা থেকে শুরু হয় একাদশ শ্রেণির পরীক্ষা। অভিযোগ এই একাদশ শ্রেণির প্রশ্নই ফাঁস হচ্ছে ঘাটালেও।

ঘাটাল মহকুমার সমস্ত আপডেট তে যুক্ত হন আমাদের সাথে!