ছাত্রছাত্রীদের জন্য অত্যন্ত জরুরি একটি বার্তা…

ছাত্রছাত্রীদের জন্য অত্যন্ত জরুরি একটি বার্তা… —সুমন বিশ্বাস
 [লেখক পরিচিত: সুমন বিশ্বাস পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার অন্তর্গত ঘাটাল মহকুমার মহকুমা শাসক]
উচ্চ মাধ্যমিকের পর যে ধারণাগুলি ছাত্রছাত্রীদের মনে আসে –
♦১) একমাত্র টেকনিক্যাল লাইনে পড়লেই শিওর চাকরি। ♦২) সায়েন্স নিয়ে পড়েছি তাই ডাক্তার বা ইঞ্জিনিয়ার হতেই হবে। ৩) জেনারেল লাইনে অনার্স নিয়ে কোনও লাভ নেই। ♦৪) যদি ডাক্তারী বা ইঞ্জিনিয়ারিং এর ডিগ্রি কোর্সে না হয় তাহলে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং বা প্যারা মেডিক্যালই শ্রেয়। ♦৫) গ্রাজুয়েশন করে কিছু হবে না। কেবল ডিগ্রি হবে। ♦৬) আর্টস নিয়ে পড়ে কি হবে? কেবল মাত্র ডিগ্রি হবে। ♦৭) কোনরকম পড়ে ডিগ্রি হলেই চলবে তারপর মেয়ে হলে বিয়ে দিয়ে দেবে আর ছেলে হলে কিছু একটা করবো। সে পরে দেখা যাবে। ভাই এই তিন বছর মজা করে নিই পরে যা হবে দেখা যাবে। স্বপ্ন দেখে কী লাভ? চাকরি বাকরি পড়াশোনা করে হবে না। আর ssc এক্সাম রেগুলার হচ্ছে আর কই? ♦৮) তার চেয়ে চল কলেজে বড় লোক বাপের মেয়ে পটাই ( লক্কা পায়রা ছেলেদের মনের ভাবনা) ♦৯) মেয়েদের ভাবনা একটা কোটিপতি ছেলেকে পটাতে পারলে লাইফ পুরো সেট। ♦১০) কলেজে কেউ পড়তে যায়না, প্রাইভেট টিউটরের নোট পড়বো, খাতায় বমি করবো। সাজেশন কমন পড়লে ভাল মার্কস পাব, তারপর যা হবে দেখা যাবে। এখন আমি তো ফার্স্ট ইয়ার, এখন গড্ডালিকা প্রবাহে একটু গা ভাসাই।
আমিও যখন ছাত্র ছিলাম তোমাদের মত এমনই ভাবনা মাথার মধ্যে ঘুরপাক খেতো। পঁচিশ বছর পেরিয়েও মূল ভাবনাগুলো একই রকম রয়ে গেছে। লেখাটা যারা পড়ছো বা পড়ছেন তারা বিভিন্ন বয়সের মানুষ। যারা এই ফেজটা অতিক্রম করে এসেছেন তারাও একটা সময় এই মিথগুলি বিশ্বাস করতেন। যারা এই সময়টা পার করে জীবনে সফলতা পেয়েছেন তারা অনেকেই বুঝতে পেরেছেন এই ধারণাগুলি ভ্রান্ত।
আমার মনে হয় উচ্চমাধ্যমিকে যেমন রেজাল্টই হোক সেটা মেনে নিতে হবে এবং স্নাতক স্তরের একটি কোর্স তোমাকে করতেই হবে। তুমি গ্রাজুয়েট হলে প্রায় সব ধরণের চাকরির পরীক্ষায় বসার উপযুক্ত হবে। সেই দরজাটা বন্ধ করে দেওয়াটা মোটেই যুক্তিযুক্ত কাজ নয়।
তুমি গ্রাজুয়েশনের সাথে কোনও ডিপ্লোমা কোর্স করতেই পারো যদি তোমার কলেজ সেটা পারমিট করে, গ্রাজুয়েশন করার পরেও কোনও ডিপ্লোমা করতে পারো এতে তোমার চাকরি পেতে সুবিধা হতে পারে। আর হ্যাঁ, গ্রাজুয়েশন কোর্সে ভর্তি হওয়ার সময় দেখে নেবে সেই কোর্সটি UGC বা টেকনিক্যাল এডুকেশন হলে স্বীকৃত বোর্ড দ্বারা তা অনুমোদিত কিনা। অনেক ছেলেমেয়েকে দেখেছি চটকদারী বিজ্ঞাপনের প্রলোভনে অস্বীকৃত কোনও কলেজে টাকা পয়সা দিয়ে ভর্তি হওয়ার পর বুঝতে পেরে পড়া ছেড়ে দিয়ে বাড়ি চলে আসতে। বাড়ির গার্ডিয়ানদেরও একটু সচেতন হতে হবে এই ব্যপারে।
ছেলেমেয়েদের প্যাশন ও বন্ধুদের দেখে সেই ধরণের কোর্সের প্রতি ঝোঁক থেকে ভর্তি করে দিলে সব সময় যে ভাল কিছু হবে এটা নাও হতে পারে। আমার তো মনে হয় ছাত্রজীবনের সবচেয়ে ক্রুশিয়াল সময় হচ্ছে উচ্চমাধ্যমিক পাশ করার পরের সময়টা। এক্ষেত্রে কি নিয়ে পড়বো এটা বুঝতে খুব সমস্যা হয় ছেলেমেয়েদের। এই সময়টাতে বাড়ির গার্ডিয়ানরাও ছেলেমেয়েদের সাথে গভীরভাবে আলোচনা করুন, অভিজ্ঞ শিক্ষক মহাশয়দের পরামর্শ নিন।
ছাত্রছাত্রীরা উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় ভাল নাম্বার না পেলে বা নীট পরীক্ষায় ভাল Rank না করতে পারলে জীবন নষ্ট এমন মোটেও ভাববে না। জীবন অনেক বড় যুদ্ধক্ষেত্র। স্নাতক স্তরে ভাল রেজাল্ট করে উচ্চ শিক্ষার বড় ক্ষেত্র অপেক্ষা করছে তোমার জন্য।
স্নাতক স্তরের পর আর বেশি না পড়তে চাইলে তখনই লেগে পড় সিভিল সার্ভিস এর প্রস্তুতিতে। এই প্রস্তুতি তোমাকে একটা না একটা চাকরি পেতে হেল্প করবে। আর স্বপ্ন যদি সলিড হয় তাহলে সিভিল সার্ভিসই তুমি ক্রাক করবে।
কলেজে ভর্তি হওয়ার দিন থেকেই স্বপ্ন দেখতে শুরু করো, জীবন তোমাকে চালাবে না তুমি জীবনকে চালাবে সেই সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় এসেছে। তোমার কাছে সবচেয়ে মূল্যবান সম্পদ হচ্ছে সময়, এই সম্পদ সঞ্চয় করা যায় না, হয় তুমি সময় কে কাজে লাগিয়ে জীবন গড়বে অথবা সময় তোমাকে ভাসিয়ে নিয়ে যাবে। সময় অপচয় [‘স্থানীয় সংবাদ’-এর সমস্ত কিছু জানতে এখানে ক্লিক করুন]করা বিবেচকের কাজ নয়। সফল হতে গেলে সবচেয়ে মূল্যবান এই সময়কে কাজে লাগাতেই হবে।
সময়ের উপযুক্ত ব্যবহারকে টাইম ম্যানেজমেন্ট বলা হয়। এর জন্য অনেক বিখ্যাত মানুষ বিভিন্ন থিয়োরি দিয়েছেন। তোমাদের ইচ্ছা হলে সেই সব থিয়োরি পড়ে দেখতে পারো।
স্বপ্ন না দেখলে জীবন সমুদ্রে দিকভ্রষ্ট জাহাজের মত খাবি খাবে, তাই এখন থেকেই স্বপ্ন দেখো, এখনই স্বপ্ন দেখার উপযুক্ত সময়। এখন সময় নষ্ট করলে জীবনে একটা সময় আসবে যখন তোমার জীবন জাহাজকে সঠিক দিশা দেওয়ার মত রসদ তোমার কাছে মজুদ নাও থাকতে পারে। তাই যারা এবছর উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছো তারা এখন থেকেই সলতে পাকাতে শুরু করো। সামনেই জীবন যুদ্ধের লড়াই তোমাদের জন্য অপেক্ষা করছে।

ঘাটাল মহকুমার সমস্ত আপডেট তে যুক্ত হন আমাদের সাথে!

‘স্থানীয় সংবাদ’ •ঘাটাল •পশ্চিম মেদিনীপুর-৭২১২১২ •ইমেল: [email protected] •হোয়াটসঅ্যাপ: 9933998177/9732738015/9932953367/9647180572/9434243732 আমাদের এই নিউজ পোর্টালটি ছাড়াও ‘স্থানীয় সংবাদ’ নামে একটি সংবাদপত্র, MyGhatalমোবাইল অ্যাপ এবং https://www.youtube.com/SthaniyaSambad ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে।