স্টেট অলিম্পিয়াডে প্রথম হল লছিপুরের সায়ন

বাবা মায়ের সঙ্গে সায়ন ভুক্তা

নিজস্ব সংবাদদাতা: স্টেট অলিম্পিয়াডে নবম শ্রেণিতে রাজ্যে প্রথম হল ঘাটাল ব্লকের লছিপুর হাইস্কুলের ছাত্র সায়ন  ভক্তা। স্বাভাবিক ভাবে সে এই জেলাতেও প্রথম হয়েছে। একটি ট্রাস্ট আয়োজিত ওই অলিম্পিয়াডে সায়ন মোট ১০০ নম্বরের পরীক্ষায় ৮৭পেয়েছে। তার মধ্যে পাটিগণিতে ৪০ এর মধ্যে ২৬, বীজগণিত ও নিউমেরিক্যালে ৪০এর মধ্যে ২৭, জ্যামিতিতে ২০’র মধ্যে ১৯, রিজনিঙে ২০’র মধ্যে ১৫। সায়নের এই রেজাল্টে খুশি সারা মহকুমার বাসিন্দারা। ওই স্কুলের টিআইসি সুব্রতকুমার মুখোপাধ্যায় বলেন, সায়ন বরাবরই পড়াশোনাতে খুব ভালো। স্কুলে বরাবরই সে প্রথম হয়। তাছাড়াও এর আগে সে নানান প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় উল্লেখযোগ্য সাফল্য অর্জন করেছে। প্রসঙ্গত,  মালদহ জেলার একটি ট্রাস্ট ২০১৯ সাল থেকে ওই স্টেট অলিম্পিয়াডের আয়োজন করে আসছে। এছাড়াও বেশ কিছু সংস্থাও স্কুলে-স্কুলে বিভিন্ন বিষয়ের ওপর বাণিজ্যিক ভাবে অলিম্পিয়াডের আয়োজন করে থাকে। এমসিকিউ-এর মাধ্যমে। স্কুলেতেই সফল ছাত্রছাত্রীদের সোনালি, রুপোলি মেডাল ও শংসাপত্র দিয়ে দেয়। কিন্তু ভারতের জাতীয় স্তরে যে অলিম্পিয়াডটি হয় সেটিকে  ‘ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল ম্যাথমেটিক্যাল অলিম্পিয়াড’ (Indian National Mathematical Olympiad) বলা হয়। ওই পরীক্ষাটি সংগঠিত করায়  ‘ভারত সরকারের অ্যাটোমিক এনার্জি’ দপ্তরের অধীন ‘ন্যাশনাল বোর্ড ফর হাইয়ার ম্যাথমেটিক্স’ (National Board for Higher Mathematics, Department of Atomic Energy, Government of India) দপ্তর। বেশ কয়েকটি রাউন্ডে প্রায় ছ’মাস ধরে ওই পরীক্ষাটি হয়ে থাকে। ‘ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল ম্যাথমেটিক্যাল অলিম্পিয়াড’-এ চূড়ান্ত রাউন্ডের শেষে  সারা দেশ থেকে প্রত্যেক বছর মাত্র ৬ থেকে ৮ জনকে বিশেষ ভাবে সম্মানিত করা হয়। তার ফলে তৈরি হয় তাদের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎও। যতদূর জানা গিয়েছে, এ পর্যন্ত ঘাটাল মহকুমায় শুধু মাত্র ২০১৯ সালে  এক ছাত্র ‘ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল ম্যাথমেটিক্যাল অলিম্পিয়াড’-এর চূড়ান্ত স্তরে সফল হয়েছিল।[‘স্থানীয় সংবাদ’-এর সমস্ত কিছু জানতে এখানে ক্লিক করুন]

ঘাটাল মহকুমার সমস্ত আপডেট তে যুক্ত হন আমাদের সাথে!

‘স্থানীয় সংবাদ’ •ঘাটাল •পশ্চিম মেদিনীপুর-৭২১২১২ •ইমেল: [email protected] •হোয়াটসঅ্যাপ: 9933998177/9732738015/9932953367/9647180572/9434243732 আমাদের এই নিউজ পোর্টালটি ছাড়াও ‘স্থানীয় সংবাদ’ নামে একটি সংবাদপত্র, MyGhatalমোবাইল অ্যাপ এবং https://www.youtube.com/SthaniyaSambad ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে।