ছাত্রের অভাবে বন্ধ হতে চলেছে স্কুল,রয়েছে শিক্ষক, ক্লাস ঘর,শৌচালয়, কিন্তু নেই স্কুলে পড়ুয়া, তাই প্রতিদিন স্কুলে আসে দুইজন শিক্ষক।আর বাড়ি চলে যান।হয়তো বেতনও পান ঠিকঠাক । এইভাবে বেশ কিছুদিন ধরে চলে আসছে গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়টি। ঘটনাটি ঘাটালের মনোহরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের খোড়িগেরিয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের। জানায়ায় গ্রামে ছাত্র নেই, পরিবার সংখ্যা কম, যেটুকু আছে অধিকাংশই বাচ্চাদের বেসরকারি স্কুলে ভর্তি করান অভিভাবকরা। তাই প্রাথমিক বিদ্যালয় যাবে কে? যদিও বা ৩
জন ছাত্র ছিল ডিসেম্বরে তারা ক্লাস ফাইভে ভর্তি হয়। বর্তমানে স্কুলে ছাত্র শূন্য হয়ে পড়েছে খোড়িগেরিয়া নেতাজি প্রাথমিক বিদ্যালয়।এবিষয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষক লক্ষী হেমরম বলেন, কয়েকবার আমরা গ্রামবাসীদের নিয়ে আলোচনায় বসেছিলাম স্কুলের ছাত্র সংখ্যা বাড়ানোর জন্য, কিন্তু সরকারী স্কুলমুখী হচ্ছে না। বেসরকারি স্কুল তারা চলে যাচ্ছে তাই আমরা বিষয়টি এস আই কে জানিয়েছি,। স্কুল সভাপতি ও গ্রামের পঞ্চায়েত সদস্য সারথী দোলই বলেন ছাত্র যখন নেই, স্কুল তুলে দেওয়া উচিত, আর শিক্ষকদের অন্যত্রে পাঠিয়ে দেয়া উচিত, এ মুহূর্তে এলাকায় সেই ধরণের কোন ছাত্র নেই যাকে স্কুলমুখী করানো যায়।তিনি বলেন গ্রামে মোট ৪৫ টি পরিবার তার মধ্যে বেশ কিছু বাইরে থাকে, এর ফলেই ছাত্র সংখ্যা কম বলে জানাচ্ছেন তিনি।

- Inline advertisement -

মোবাইলে নিয়মিত খবর পড়তে এইখানে ক্লিক করুন Whatsapp

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here