চন্দ্রকোণার স্বরূপ মেতেছে ফুটবলে, প্রশংসা ঘাটাল জুড়ে

নিজস্ব সংবাদদাতা, স্থানীয় সংবাদ, ঘাটাল: বন্ধ স্কুল-কলেজ,মোবাইল গেমে আসক্ত হয়ে পড়ছে স্কুলপড়ুয়ারা, এলাকার যুবকদের ফুটবল খেলায় নেশা ধরিয়ে যুবকদের মূলস্রোতে ফিরিয়ে আনছে চন্দ্রকোনার স্বরুপ। এলাকাবাসী বলছে এ যেন দুয়ারে ফুটবল প্রশিক্ষণ, আর ফুটবল খেলা বললে সবার আগে তারা বলেন স্বরূপ ঘোষ এর নাম। জানা যায় দীর্ঘ ১২ বছর ধরে নিজের একান্ত চেষ্টায় কারো কাছ থেকে কোন পারিশ্রমিক না নিয়ে প্রতিনিয়ত শহর থেকে শুরু করে গ্রাম গঞ্জের স্কুলপড়ুয়াদের ফুটবল প্রশিক্ষণ দিয়ে চলেছে ফুটবলের শিক্ষক ৫০ বছর বয়সী চন্দ্রকোনার বাসিন্দা স্বরূপ ঘোষ । স্বরূপ আগে বাড়ি বাড়ি পেপার বিক্রি করতো, আর তার সাথে ছিল ফুটবল খেলার প্রচুর নেশা।এককথায় স্বরূপ চন্দ্রকোনায় একসময়ের নামকরা ফুটবল খেলোয়াড় ছিলেন, ফুটবল খেলতে খেলতে একসময় তার পায়ের লিগামেন্ট ছিঁড়ে যায় তারপর থেকেই কোন টুর্ণামেন্টে খেলতে পারেনি সে। তাই ২০০৯ সাল থেকে গ্রামের ছেলেদের ফুটবল খেলায় আগ্রহী করার জন্য গ্রাম গঞ্জের যুবকদের ফুটবল প্রশিক্ষণ দেয়া শুরু করল স্বরূপ। যদিও স্বরূপ ও এলাকার মানুষজনদের দাবি ফুটবল খেলায় থেকে অনেক ছেলে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিল। অধিকাংশ ছেলে ক্রিকেট আর মোবাইল গেমে মেতে ছিলেন। তাই গ্রামের ছেলেদের ফুটবল খেলায় উদ্যোগী করতে উদ্যোগ নিল স্বরুপ।এমনকি স্বরুপের উদ্যোগে কিছুটা হলেও চন্দ্রকোনা বেশকিছু যুবককে ফুটবলে উদ্যোগী করা গেছে। প্রতিনিয়ত বাড়ছে ফুটবল খেলোয়াড় এর সংখ্যা। কারও কাছ থেকে কোনও পারিশ্রমিক না নিয়ে এলাকার কিছু মানুষের কাছ থেকে সাহায্য নিয়ে প্রতিনিয়ত এইভাবে ফুটবল প্রশিক্ষণ দিয়ে চলেছে স্বরূপ। এমনকি পাড়ায় পাড়ায় গিয়ে ভালো ফুটবল খেলে গ্রামে যে সমস্ত ছেলেরা তাদের সেখান থেকে প্রতিনিয়ত আসার জন্য দাবি করেন চন্দ্রকোনা জিরাট স্কুল মাঠে স্কুল মাঠে ফুটবল প্রশিক্ষণ নিতে।শুধু চন্দ্রকোনা থানা নয়, ঘাটাল, গরড়বেতা, বিভিন্ন এলাকা থেকে স্বরুের কাছে ফুটবল প্রশিক্ষণ নিতে আসে বহু স্কুল পড়ুয়া। স্বরূপের এই ফুটবল খেলায় সব ধরনের সাহায্য করবে বলে জানিয়েছে চন্দ্রকোনার বিধায়ক অরূপ ধাড়া।

ঘাটাল মহকুমার সমস্ত আপডেট তে যুক্ত হন আমাদের সাথে!

‘স্থানীয় সংবাদ’ •ঘাটাল •পশ্চিম মেদিনীপুর-৭২১২১২ •ইমেল: [email protected] •হোয়াটসঅ্যাপ: 9933998177/9732738015/9932953367/9647180572/9434243732 আমাদের এই নিউজ পোর্টালটি ছাড়াও ‘স্থানীয় সংবাদ’ নামে একটি সংবাদপত্র, MyGhatalমোবাইল অ্যাপ এবং https://www.youtube.com/SthaniyaSambad ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে।